ইবনে জুযাইয়ের দৃষ্টিতে মুজতাহিদের শর্ত

[ইজতিহাদ বলতে কুর’আন সুন্নাহর আলোকে শারই হুকুম-আহকাম উদ্ভুত করাকে বুঝায়। ব্যাপারটা আমরা অনেকে যেভাবে সোজাসাপ্টা মনে করি, বাস্তবতা ঠিক তাঁর উল্টো। এর জন্যে প্রয়োজন উপযুক্ত যোগ্যতা ও কঠোর পরিশ্রম। এই লেখাটি থেকে ইবনে জুযাই আল কালবি রহিমাহুল্লাহর কলমে ইজতিহাদের প্রাথমিক শর্তগুলো জেনে নেওয়া যাক।- ফিকির ব্লগ সম্পাদক]

ইবনু জুযাই আল কালবি আল গারনাতি। পুরো নাম আবুল কাসিম মুহাম্মাদ বিন আহমাদ বিন মুহাম্মাদ বিন আবদুল্লাহ ইবনে জুযাই আল কালবি। আন্দালুসের প্রখ্যাত মালিকি আলেম ছিলেন।  ৭৪১ হিজরিতে তারিফের জিহাদে শামিল হয়ে শহিদ হয়েছেন। তাফসির, হাদিস, আকিদা, ফিকহ, কিরাআত, উসুল নিয়ে লিখেছেন সহজ-সরল স্বাভাবিক ভাষায়।

উসুলে ফিকহ নিয়ে তাঁর অসামান্য কীর্তি “তাকরিবুল ওসুল ইলা ইলমিল উসুল” (تقريب الوصول الى علم الأصول)।  উসুলে ফিকহের কিতাবাদির রেওয়াজ মোতাবেক আপন কিতাবে যুক্ত করেছেন ইজতিহাদ এবং তাকলিদ নিয়ে আলোচনা। ইজতিহাদের নানা দিক আলোচনার সাথে প্রসঙ্গ এনেছেন কি কি শর্ত থাকলে একজন ব্যক্তি ইজতিহাদ করতে পারবে, বা মুজতাহিদ হতে পারবে।

তিনি বলছেন –

“وهي على الجملة أربعة: التكليف، والثاني العدالة، والثالث جودة الحفظ، والرابع المعرفة بما يتوقف عليها الاجتهاد من العلوم

” (মুজতাহিদ হবার শর্ত) মোটাদাগে ৪টি।

  • শরিয়তবদ্ধতা থাকা (মুকাল্লাফ হওয়া)
  • আদালাত
  • হিফয থাকা
  • যেসব বিষয়ের জ্ঞানের উপর ইজতিহাদ নির্ভর করে, সেসব জ্ঞান থাকা

، وهي خمسة فنون:

– أولها: كتاب اللَّه تعالى فلا بد من حفظه، وتجويد قراءته ولو بحرف واحد من الأحرف السبعة، وفهم معانيه لا سيما آيات الأحكام، ومعرفة المكي والمدني منه، ومعرفة المحكوم، والناسخ والمنسوخ منه وغير ذلك من علومه.

৫টি শাস্ত্রে জ্ঞান রাখা প্রয়োজন –

এক, কিতাবুল্লাহ।

আল্লাহর কিতাব অবশ্যই –

  • হিফয থাকতে হবে
  • সাত হরফের এক হরফ মোতাবেক হলেও কিরাআতের তাজউইদ জানতে হবে
  • আয়াতের অর্থ জানতে হবে, বিশেষ করে আহকামের আয়াতসমূহের অর্থ
  • মাক্কি-মাদানি আয়াত জানতে হবে
  • মাহকুম জানতে হবে
  • নাসিখ মানসুখ জানতে হবে

এছাড়াও আরো যা যা ইলম আছে, তা হাসিল করতে হবে।

وقال قوم من الأصوليين: لا يشترط حفظه للقرآن ولا حفظه لآيات الأحكام منه بل العلم بمواضعه لينظر فيها الحاجة إليها (٣) ، وهذا خطأ من وجهين:

أحدهما: أن الأحكام قد تخرج من غير الآيات المعلومة فيها فيضطر إلى حفظ الجميع.

والآخر: أن من زهد في حفظ كتاب اللَّه كما ينبغي أن يكون إمامًا في دين اللَّه، كيف وقد قال رسول اللَّه -صلى اللَّه عليه وسلم-: “كِتَابُ اللَّهِ هُوَ حَبْلُ اللَّه المَتِينُ، وَصِرَاطُهُ الْمُسْتَقِيمُ، فِيهِ خَبَرُ مَنْ قَبْلَكُمْ وَنَبَأ مَنْ بَعْدَكُمْ، وَحُكْمُ مَا بَيْنَكُمْ، مَنْ تَرَكَهُ مِنْ جَبَّارِ قَصَمَهُ اللَّهُ، وَمَن ابْتَغَى الهُدَى مِنْ غَيْرِهِ أَضَلَّهُ اللَّهُ” (٤) حسبك هذا الوعيد لمن تركه وابتغى الهدى من غيره.

একদল উসুলবিদ অবশ্য বলেন, মুজতাহিদের জন্য কুরআন হিফয এবং আহকামের আয়াত মুখস্থ জরুরি নয়, কেবল আয়াতের স্থান জানলেই হবে যেন সেখানে নজর বুলিয়ে নেয়া যায়। কিন্তু একথা ঠিক নয় দুটো দিক থেকে;

১।, মাঝে মাঝে হুকুম-আহকাম বের করা হয় সে হুকুমের সাথে সংশ্লিষ্ট নয় এমন আয়াত থেকে, যেজন্য পুরো কুরআন হিফয জরুরি হয়ে পড়ে;

২।, যিনি কুরআন হিফযের জন্য যেভাবে উচিত সেভাবে চেষ্টা-সাধনা না করেন, তিনি আল্লাহর দীনে ইমাম হতে পারবেন না। আর কিভাবেই বা হবেন, যখন রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, “আল্লাহর কিতাব হল আল্লাহর মজবুত রশি। কুরআনের রাস্তাই হল সিরাতে মুসতাকিম। কুরআনে আছে তোমার পূর্ববর্তীদের খবর, পরবর্তীদের সংবাদ, এবং তোমাদের মাঝে যা আছে তা নিয়ে হুকুম। অহংকার করে যে ব্যক্তি তা পরিত্যাগ করবে, আল্লাহ তাকে চূর্ণ করবেন। যে ব্যক্তি কুরআনের পথ ছাড়া ভিন্ন পথ গ্রহণ করবে, আল্লাহ তাকে পথভ্রষ্ট করবেন।”

যে ব্যক্তি কুরআন পরিত্যাগ করে এবং কুরআন থেকে ভিন্ন পথ অবলম্বন করে, তার জন্য এ শাস্তির প্রতিশ্রুতিই যথেষ্ট।

– وثانيها: حفظ حديث رسول اللَّه -صلى اللَّه عليه وسلم-، وأحاديث أصحابه، وحفظ أسانيدها، ومعرفة الرجال الناقلين لهما، على أن أئمة المحدثين رضي اللَّه عنهم وجزاهم خيرًا، قد قاموا بوظيفة معرفة الناقلين، وتجريحهم وتعديلهم، وتمييز الحديث الصحيح من غيره، وتدوينه في تصانيفهم حين كفوا من بعدهم مؤنة معرفة الأسانيد والرجال، وصار ذلك للمجتهد صفة كمال.”

“وقال قوم: لا يشترط في المجتهد حفظ الحديث (١) ، وهذا أيضًا خطأ، فإن أكثر الأحكام منصوصة في الحديث، فإذا لم يعرف الحديث أفتى بالقياس أو غيره من الأدلة الضعيفة وخالف النص النبوي.

দুই- হাদিস হিফয করা, যেমন –

  • রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর হাদিস
  • সাহাবায়ে কেরামের আছার
  • সেসবের সনদসমূহ
  • হাদিসের নাকেলদের জীবনী

মুহাদ্দিসিনে কেরাম, আল্লাহপাক তাঁদের ওপর সন্তুষ্ট হন এবং উত্তম জাযা দিন, হাদিসের নাকেলদের পরিচয়, জারহ, এবং তা’দিলের সবিশেষ মেহনত করেছেন। সহিহ হাদিসকে গায়রে সহিহ থেকে আলাদা করেছেন। আপন রচনাভান্ডারে এমনভাবে এসব সাজিয়ে তুলেছেন যে, পরবর্তীরা সনদ ও রিজালের পরিচয়প্রদান থেকে বিরত হয়েছেন। বিষয়টি একজন মুজতাহিদের জন্য পূর্ণতার বৈশিষ্ট্যে রূপ নিয়েছে।

অবশ্য একদল বলেন,  মুজতাহিদের জন্য হাদিসের হিফয কোনো শর্ত নয়। এটাও ভুল ধারণা। কেননা, বেশিরভাগ আহকাম তো হাদিসে লিপিবদ্ধ৷ হাদিস না জানলে কিয়াস দিয়ে বা অন্যান্য দুর্বল দলিল দ্বারা ফাতওয়া দেয়া হয়, যা নববি নুসুসের খেলাফ হয়ে যায়।

– وثالثها: المعرفة بالفقه، وحفظ مذاهب العلماء في الأحكام الشرعية ليقتدي في مذاهبه بالسلف الصالح، وليختار في أقوالهم ما هو أصح وأرجح، ولئلا يخرج عن أقوالهم بالكلية، فيخرق الإجماع، وقد كان مالك على جلالته يقتدي بمن تقدمه من العلماء، ويتبع مذاهبهم.

তিন- ফিকহের পরিচয় জানা, শরয়ি আহকামের বিষয়ে উলামায়ে কেরামের বিভিন্ন মতামত জানা, যাতে সালফে সালেহিনের মতামতের অনুসরণ করা যায় এবং তাঁদের কওলের মাঝে সবচেয়ে সহিহ এবং রাজেহ কওল গ্রহণ করা যায়। এটাও কারণ যে, কারো কওল থেকে একেবারে বেরিয়ে না যাওয়া, যা ইজমার বিপরীত হবে। ইমাম মালিক এজন্য এত বিরাট ব্যক্তিত্ব হওয়া সত্ত্বেও তাঁর পূর্বের আলেমদের অনুসরণ করতেন এবং তাঁদের মতামত মানতেন।

– ورابعها: المعرفة بأصول الفقه، فإنه الآلة التي يتوصل بها للاجتهاد(٢) .

চার, উসুলে ফিকহ নিয়ে জানা। কেননা, উসুলে ফিকহই হল ইজতিহাদে পৌঁছানোর মাধ্যম।

– وخامسها: المعرفة بما يحتاج إليه من علوم لسان العرب من النحو واللغة ليفهم بذلك القرآن والحديث إذ هما بلسان العرب (٣) .

পাঁচ, আরবি ভাষা, ব্যাকরণ, শব্দভান্ডার, ও ভাষাজ্ঞানের প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো জানা। কেননা, কুরআন এবং হাদিস উভয়ের ভাষাই আরবি।

وأما معرفته بغير ما ذكرنا من العلوم فليست شرطًا في الاجتهاد في الأحكام الشرعية، ولكنها صفةكمال، ومن أراد الاجتهاد في فن من الفنون فلا بد له من معرفته ومعرفة رواته”

এসব বাদে অন্যান্য বিষয়ের জ্ঞান রাখা শর‍য়ি আহকামের বিষয়ে মুজতাহিদ হবার শর্ত নয়। তবে সেগুলো পূর্ণতার বৈশিষ্ট্য। যেকোনো শাস্ত্রে কেউ ইজতিহাদ করতে চাইলে অবশ্যই সে শাস্ত্রের পরিচয় এবং শাস্ত্রের বর্ণনাকারীদের পরিচয় জানা আবশ্যক।

من كتاب: تقريب الوصول إلي علم الأصول


অনুবাদ – এম নাহী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *